মেনু নির্বাচন করুন
উপজেলা ভূমি অফিস

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ মাঠ পযায়ের একটি অফিস হচ্ছে উপজেলা ভূমি অফিস। বিভাগীয় শহর সিলেট হতে প্রায় ২৮ কিলোমিটার দূরে সিলেট-মৌলভীবাজার সিলেট মহাসড়কের পাশে ওসমানীনগর উপজেলা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ মাঠ পযায়ের একটি অফিস হচ্ছে উপজেলা ভূমি অফিস। বিভাগীয় শহর সিলেট হতে প্রায় ২৮ কিলোমিটার দূরে সিলেট-মৌলভীবাজার সিলেট মহাসড়কের পাশে ওসমানীনগর উপজেলায়  অবস্থিত  উপজেলা ভূমি অফিস, উপজেলা ভূমি অফিস হতে নামজারী ও জমা খারিজ, কৃষি ও অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত, ভূমি উন্নয়ন কর, অর্পিত সম্পত্তি বন্দোবস্ত ও নবায়ন, জলমহাল, বালুমহাল ও হাট-বাজার এর ইজারা, জমির পর্চাসহ ভূমি সম্পর্কিত বিভিন্ন রকম সেবাসমূহ প্রদান করা হয়। পাশে  অবস্থিত  ইউনিয়ন ভূমি অফিস, উপজেলা ভূমি অফিস হতে নামজারী ও জমা খারিজ, কৃষি ও অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত, ভূমি উন্নয়ন কর, অর্পিত সম্পত্তি বন্দোবস্ত ও নবায়ন, জলমহাল, বালুমহাল ও হাট-বাজার এর ইজারা, জমির পর্চাসহ ভূমি সম্পর্কিত বিভিন্ন রকম সেবাসমূহ প্রদান করা হয়। 

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

নামজারী এবংভূমি উন্নয়ন কর সম্পর্কিত তথ্য

 

নামজারী বা মিউটেশন:

আইনগতভাবে স্বীকৃত কারণে জমির মালিকনা পরিবর্তন ঘটলে যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নতুন মালিকগণের মালিকানা পরিবর্তিত জমির পরিমাণবা অংশ, দাগ নম্বর ইত্যাদি বিষয় খতিয়ানে প্রতিফলনের মাধ্যমে রেকর্ড সংশোধন করা হয় তাকে নামজারী,জমিভাগ,জমি একত্রিকরণ, খারিজ বলে।

নিজ নিজএলাকার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন করে নামজারী/মিউটেশনকরতে হয়।

 

নামজারী করার ক্ষেত্রে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজনীয়?

Ø পাসপোর্ট সাইজের ০১ কপি সত্যায়িত ছবি;

Ø এস.এ খতিয়ান এর ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø আর.এস খতিয়ান/ মাঠ জরিপের পর্চা এর ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø খারিজ খতিয়ানের ফটোকপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে);

Ø ওয়ারিশ সনদপত্র(অনধিক তিন মাসের মধ্যে ইস্যুকৃত);

Ø মূল দলিলের ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø বায়া/ পিট দলিলের ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলা(অবশ্যই দাখিল করতে হবে);

Ø তফসিলে বর্ণিত চৌহদ্দি কলমী নক্সা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে);

Ø প্রযোজ্য ক্ষেত্রে আদালতের রায়/ আদেশ/ ডিক্রীর ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø ডিসিআর ব্যতিত কোন খারিজ খতিয়ান সরবরাহ করা হবেনা

              

কী প্রক্রিয়ায় নতুন মালিকের নামজারী সম্পাদিত হয়?

Ø সহকারী কমিশনার (ভূমি)বরাবর সরকার নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হয়;

Ø আবেদনপত্রের সাথে প্রয়োজনীয় কোর্ট ফি  এবং অন্যান্য ফি জমা দিতে হয়;

Ø আবেদনপত্র জমাদানের সময় মামলা নং এবং কবে মামলা নিষ্পত্তি হবে তা সংগ্রহ করতে হয়;

Ø তহসিল অফিস কর্তৃক মামলা নথির তদন্ত গ্রহণ এবং নামজারী প্রস্তাব প্রস্তুত করা হয়;

Ø ক্ষেত্র বিশেষে সেটেলমেন্ট অফিসেডকুমেন্ট পাঠানো হয় এবংমতামতগ্রহণ করা হয়;

Ø শুনানির জন্য তারিখ নির্ধারণ এবং আবেদনকারীকে নোটিশ প্রদান/ তবে না অনুমোদনের জন্য প্রস্তাব প্রদান করা হলেও সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে নোটিশ প্রদান করা হয়;

Ø সহকারি কমিশনার(ভূমি) এরউপস্থিতিতে শুনানি গ্রহণ এবং রায় ঘোষণা করা হয় অথবা রায় ঘোষনার তারিখ প্রদান করা হয়;

Ø মামলার রায় নামজারী রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করা হয়;

Ø ইউনিয়ন ভূমি অফিসের রেকর্ড সংশোধন করার জন্য রায়ের কপি পাঠানো হয়;

Ø উপজেলা ভূমি অফিসেররেকর্ড বা খতিয়ান সংশোধন এবং সেটেলমেন্ট অফিসের পর্চাসংশোধনের জন্য কপি পাঠানো হয়;

Ø উপজেলা ভূমি অফিসে নামজারী মামলার কেস বা নথি ১২ বছর পর্যন্তসংরক্ষণ করা হয়;

           

নামজারী/মিউটেশন ফি কত টাকা?

খাত

ফি (টাকা)

(১) নামজারী/জমি ভাগ ফি (খতিয়ান প্রতি)

নোটিশ ফি: ২ টাকা(অনধিক ৪ জনের জন্য), ৪ এর অধিক প্রতি জনের জন্য আরো ০.৫০ টাকা হিসাবে আদায় করতে হবে।

(২) আবেদন বাবদ কোর্ট ফি

৫ টাকা

(৩) রেকর্ড সংশোধন ও পর্চা ফি বাবদ

২০০ টাকা

(৪) প্রতি কপি মিউটেশন খতিয়ান ফি

২৫.০০+১৮.০০টাকা

 সর্বমোট

২৫০টাকা

বিঃ দ্রঃ এখানে উল্লেখ্য যে, আবেদন বাবদ ৫.০০ টাকা কোর্ট ফি এর মাধ্যমে এবং অবশিষ্ট এফ.ডি.সি.আর এর মাধ্যমে জমা দেয়া যেতে পারে।  মিউটেশন করার সাথে সাথে একটি খতিয়ানের অনুলিপিঅফিস থেকে দেয়া হয়, যাকে মিউটেশন বা খারিজ পর্চা বলে। নামজারি বাবদ উপরোক্ত খরচ ছাড়া অন্য কোন টাকা দেওয়া বা নেওয়া সম্পূর্ণ বেআইনী ও অবৈধ।  

 

কত দিনের মধ্যে নামজারী/ মিউটেশন সম্পাদন হয়?

সিটিজেন চার্টার অনুসারে ৪৫(পঁয়তাল্লিশ) কর্ম দিবসেরমধ্যে নামজারী সম্পাদন করা হবে যদি মালিকানার বিষয় নিয়ে কোন বিতর্ক না থাকে এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আবেদনের সাথে জমা দেয়া হয়।

 

খতিয়ানের জাবেদা নকল/ সার্টিফাইড কপির জন্য ফি:

ফিসের বিষয়

সাধারণ

জরুরী

(১) প্রতি খতিয়ানে জাবেদা নকলের জন্য কোর্ট ফি  (ফোলিওপ্রতি)

২.০০ টাকা

-

(২) সাধারণ কোর্ট ফি:

১১টাকা

১৬ টাকা

 

ভূমি উন্নয়ন কর/ খাজনা:

সাধারণত যার নামে জমির রেকর্ড সেই ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ভূমি উন্নয়ন কর দিতে হয়। যে এলাকায় জমির অবস্থান সেই এলাকার ইউনিয়ন ভূমি অফিসে (তহসিল অফিস) ভূমি উন্নয়ন কর দিতে হয়।

 

কৃষি জমির ভূমি উন্নয়ন কর:

০.০১ থেকে  ৮.২৫ একর পর্যন্ত

২৫ বিঘা পর্যন্ত কৃষি জমির খাজনা মওকুফ তবে মালিকানা স্বত্ত্বপ্রমাণের  জন্য খতিয়ান প্রতি ২.০০ টাকা দিয়ে দাখিলা নিতে হবেএবং অন্যান্য জমির ক্ষেত্রে খাজনা প্রযোজ্য।

৮.২৫ একরের উর্ধ্বে হইতে ১০ একর পর্যন্ত

প্রতি শতাংশ ০.৫০ টাকা হারে

১০ একরের উর্ধ্বে

প্রতি শতাংশ ১.০০ টাকা হারে

 

অকৃষি জমির ভূমি উন্নয়ন কর:                                                                                                                    

এলাকা

শিল্প/বাণিজ্যিক ব্যবহৃত জমি (প্রতি শতাংশ)

আবাসিক বা অন্য কাজে ব্যবহৃত জমি (প্রতি শতাংশ)

(ক)দিনাজপুরজেলা সদরের পৌর এলাকা

২২.০০ (বাইশ)টাকা

৭.০০ (সাত) টাকা

(খ)জেলা সদর ব্যতীত অন্য পৌর এলাকা

১৫.০০(পনের) টাকা

৫.০০(পাঁচ) টাকা

(গ) পৌর এলাকা ঘোষিত হয় নাই এরুপ এলাকা

১৫.০০ (পনের) টাকা

৫.০০ (পাঁচ) টাকা

 

কেন ভূমি উন্নয়ন কর সময়মত পরিশোধ করবেন?

ভূমি উন্নয়ন কর প্রতি বছর পরিশোধ করতেহয়। পর পর দুই বছর ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ না করলেজমির মালিকের বিরুদ্ধে (পি.ডি.আর এ্যাক্টের আওতায়) সার্টিফিকেট কেস হবে। এই কেসে হারলে অর্থাৎ ভূমি উন্নয়ন কর না দিতে পারলে জমির অধিকার হারাবেন। ভূমি উন্নয়ন কর বাকী পড়লে জমি নিলামে তোলা হয়।

 

তথ্য/ সেবা না পেলে কার কাছে অভিযোগ করবেন?

ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এবং সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসে তথ্য/সেবা পেতে হয়রানির শিকার হলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কেলিখিতভাবে জানাবেন/ অভিযোগ করবেন।

 

ক্রমিক নং

সেবার নাম

সেবা প্রদানের সময় সীমা

সেবা প্রদানের পদ্ধতি

সেবা প্রদানের স্থান

০১

ভূমি উন্নয়ন কর (কৃষি ও অকৃষি)

আদায়

০১ জুলাই হতে ৩০ জুন (এক আর্থিক বছর)

সরকার কর্তৃক নির্ধারিত নীতি মালা অনুসারে।

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

(সংশিস্নষ্ট)

 

 

 

 

 

 

মিউটেশন (নামজারী) জমা ভাগ ও জমা একত্রিকরন সংক্রান্ত নিয়মাবলী

 

মিউটেশনের জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর দরখাসত্ম দাখিল করতে হবে।

মিউটেশনের আবেদনের সাথে নিম্ন বর্ণিত কাগজপত্র দাখিল করতে হবে।

(ক) প্রযোজ্য ক্ষেত্রেঃ  ১। ক্রয় ও প্রয়োজনীয় বায়া দলিলের কপি। ২। ওয়ারিশ সনদপত্র  ৩। হেবা দলিলের কপি এবং সকল রেকর্ড বা পর্চা খতিয়ানের সার্টি ফাইড কপি। ৪। সর্বশেষ জরিপের পর থেকে বায়া /পিট দলিল এর সার্টি ফাইড/ফটোকপি

৫। ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলা ।  ৬। তফফিল বর্ণিত চৌহদ্দিসহ কলমি নকসা ০১ কপি।

(খ) মিউটেশনের খরচঃ

(ক) আবেদন বাবদ কোর্ট ফি = ৫/- (পাঁচ টাকা)

(খ) নোটিশ জারী ফি = ২/- (দুই টাকা) (অনাধিক ৪ জনের জন্য ) চার জনের অধিক প্রতিজনের জন্য আরো ০.৫০ টাকা হিসাবে আদায় করা হবে।

(গ) রেকর্ড সংশোধন ফি = ২০০/- (দুইশত) টাকা।

(ঘ) প্রতিকপি মিউটেশন খতিয়ান ফি = ৪৩/- (তেতালি­শ) টাকা।

সর্বমোট= ২৫০/- (দুইশত পঞ্চাশ) টাকা + চার জনের অধিক হলে নোটিশ জারী ফি প্রতিজনের জন্য আরো ০.৫০ টাকা হিসেবে আদায় করা হবে।

বিঃদ্রঃদরখাস্ত জমা দেওয়ার দিন থেকে ৪৫ দিনের মধ্যে মিউটেশন কেস নিষ্পত্তি না হলে এবং উলে­খিত খরচের অতিরিক্ত ফি কেউ দাবী করলে সহকারী কমিশনার (ভূমি)/ উপজেলা নির্বাহী অফিসার/রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর/অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) অথবা জেলা প্রশাসকের সাথে যোগাযোগ করুন।

 

ভূমি উন্নয়ন করের দাবী নির্ধারনঃ

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

বিগত অর্থছরের দাবী

বিগত অর্থবছরের আদায়

বিগত অর্থবছরে আদায়ের হার

বর্তমান অর্থবছরের দাবী

দাবী বৃদ্ধি (টাকায়)

দাবী বৃদ্ধির হার

মমত্মব্য

বাজনাব

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

বিগত অর্থছরের দাবী

বিগত অর্থবছরের আদায়

বিগত অর্থবছরে আদায়ের হার

বর্তমান অর্থবছরের দাবী

দাবী বৃদ্ধি (টাকায়)

দাবী বৃদ্ধির হার

মমত্মব্য

বাজনাব

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ভূমি উন্নয়ন করের (সাধারণ) দাবী আদায়ঃ

 

ক্রমিক

নং

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

বর্তমান অর্থছরের দাবী

বিবেচ্য মাসে আদায়ের টার্গেট

বিবেচ্য মাসে আদায়

বিবেচ্য মাসে আদায়ের হার

বিগত মাসে আদায়

মমত্মব্য

০১

বাজনাব

 

 

 

 

 

 

 

 

নামজারী-জমাখারিজের আবেদন নিষ্পত্তিঃ

ক্রমিক নং

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

বিগত মাস পর্যমত্ম পেন্ডিং আবেদনের সংখ্যা

বিবেচ্য মাসে দায়ের

মোট আবেদনের সংখ্যা

বিবেচ্য মাসে নিষ্পত্তি

নিষ্পত্তির হার

অনিষ্পন্ন আবেদনের সংখ্যা

০১

বাজনাব

 

 

 

 

 

 

 

কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত

ক্রমিক নং

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

বর্তমানে বন্দোবসত্মযোগ্য কৃষি খাস জমির পরিমান

বিবেচ্য মাসে বন্দোবসত্মকৃত কৃষি খাস জমির পরিমান

বিবেচ্য মাসে উপকারভোগী

পরিবারের সংখ্যা

কবুলিয়ত সম্পাদন হয়েছে এমন পরিবারের সংখ্যা

অবৈধ দখলীয় কৃষি খাস জমির পরিমান

মামলা মোকদ্দমার জড়িত কৃষি খাস জমির পরিমান

বন্দোবসত্মযোগী নয় এরূপ কৃষি খাস জমির পরিমান

০১

 

বাজনাব

 

 

 

 

 

 

 

 

অর্পিত সম্পত্তি ব্যবস্থাপনাঃ

ক্রমিক নং

ইউনিয়ন ভূমি অফিসের নাম 

অর্পিত সম্পত্তির পরিমান

অর্পিত সম্পত্তির ইজারা

বিগত অর্থবছরের দাবী ও আদায়

বর্তমান অর্থবছরের দাবী ও আদায়

মমত্মব্য

বকেয়া

হাল

মোট

 

 

 

 

 

প্রত্যর্পনযোগ্য

অনিবাসী

ইজারাভূক্ত

ইজারা

বিহীন

দাবী

আদায়

হার

দাবী

বিবেচ্য মাস পর্যমত্ম আদায়

হার

 

০১

 

বাজনাব

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

              

বিবিধ পাবলিক পিটিশন নিষ্পত্তিঃ

ক্রঃ

 নং

ইউনিয়ন ভূমি অফিস

বিগত মাস পর্যমত্ম পেন্ডিং পাবলিক পিটিশনের সংখ্যা

বিবেচ্য মাসে আগত পাবলিক পিটিশনের সংখ্যা 

বিবেচ্য মাসে নিষ্পত্তিকৃত পাবলিক পিটিশনের সংখ্যা

মাস শেষে পেন্ডিং পাবলিক টিটিশনের সংখ্যা

মমত্মব্য

০১

 

বাজনাব

 

 

 

 

 

. জনদুর্ভোগ লাঘব ও সেবার মান উন্নয়নে গৃহীত বিশেষ উদ্যোগঃ সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট সরাসরি স্বাক্ষাতের মাধ্যমে যে কোন অভিযোগ/ আবেদন তাৎক্ষণিক ভাবে নিষ্পত্তির ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

নামজারী এবংভূমি উন্নয়ন কর সম্পর্কিত তথ্য

 

নামজারী বা মিউটেশন:

আইনগতভাবে স্বীকৃত কারণে জমির মালিকনা পরিবর্তন ঘটলে যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নতুন মালিকগণের মালিকানা পরিবর্তিত জমির পরিমাণবা অংশ, দাগ নম্বর ইত্যাদি বিষয় খতিয়ানে প্রতিফলনের মাধ্যমে রেকর্ড সংশোধন করা হয় তাকে নামজারী,জমিভাগ,জমি একত্রিকরণ, খারিজ বলে।

নিজ নিজএলাকার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর আবেদন করে নামজারী/মিউটেশনকরতে হয়।

 

নামজারী করার ক্ষেত্রে কি কি ডকুমেন্ট প্রয়োজনীয়?

Ø পাসপোর্ট সাইজের ০১ কপি সত্যায়িত ছবি;

Ø এস.এ খতিয়ান এর ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø আর.এস খতিয়ান/ মাঠ জরিপের পর্চা এর ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø খারিজ খতিয়ানের ফটোকপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে);

Ø ওয়ারিশ সনদপত্র(অনধিক তিন মাসের মধ্যে ইস্যুকৃত);

Ø মূল দলিলের ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø বায়া/ পিট দলিলের ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলা(অবশ্যই দাখিল করতে হবে);

Ø তফসিলে বর্ণিত চৌহদ্দি কলমী নক্সা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে);

Ø প্রযোজ্য ক্ষেত্রে আদালতের রায়/ আদেশ/ ডিক্রীর ফটোকপি/ সার্টিফাইট কপি;

Ø ডিসিআর ব্যতিত কোন খারিজ খতিয়ান সরবরাহ করা হবেনা

              

কী প্রক্রিয়ায় নতুন মালিকের নামজারী সম্পাদিত হয়?

Ø সহকারী কমিশনার (ভূমি)বরাবর সরকার নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হয়;

Ø আবেদনপত্রের সাথে প্রয়োজনীয় কোর্ট ফি  এবং অন্যান্য ফি জমা দিতে হয়;

Ø আবেদনপত্র জমাদানের সময় মামলা নং এবং কবে মামলা নিষ্পত্তি হবে তা সংগ্রহ করতে হয়;

Ø তহসিল অফিস কর্তৃক মামলা নথির তদন্ত গ্রহণ এবং নামজারী প্রস্তাব প্রস্তুত করা হয়;

Ø ক্ষেত্র বিশেষে সেটেলমেন্ট অফিসেডকুমেন্ট পাঠানো হয় এবংমতামতগ্রহণ করা হয়;

Ø শুনানির জন্য তারিখ নির্ধারণ এবং আবেদনকারীকে নোটিশ প্রদান/ তবে না অনুমোদনের জন্য প্রস্তাব প্রদান করা হলেও সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষকে নোটিশ প্রদান করা হয়;

Ø সহকারি কমিশনার(ভূমি) এরউপস্থিতিতে শুনানি গ্রহণ এবং রায় ঘোষণা করা হয় অথবা রায় ঘোষনার তারিখ প্রদান করা হয়;

Ø মামলার রায় নামজারী রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করা হয়;

Ø ইউনিয়ন ভূমি অফিসের রেকর্ড সংশোধন করার জন্য রায়ের কপি পাঠানো হয়;

Ø উপজেলা ভূমি অফিসেররেকর্ড বা খতিয়ান সংশোধন এবং সেটেলমেন্ট অফিসের পর্চাসংশোধনের জন্য কপি পাঠানো হয়;

Ø উপজেলা ভূমি অফিসে নামজারী মামলার কেস বা নথি ১২ বছর পর্যন্তসংরক্ষণ করা হয়;

           

নামজারী/মিউটেশন ফি কত টাকা?

খাত

ফি (টাকা)

(১) নামজারী/জমি ভাগ ফি (খতিয়ান প্রতি)

নোটিশ ফি: ২ টাকা(অনধিক ৪ জনের জন্য), ৪ এর অধিক প্রতি জনের জন্য আরো ০.৫০ টাকা হিসাবে আদায় করতে হবে।

(২) আবেদন বাবদ কোর্ট ফি

৫ টাকা

(৩) রেকর্ড সংশোধন ও পর্চা ফি বাবদ

২০০ টাকা

(৪) প্রতি কপি মিউটেশন খতিয়ান ফি

২৫.০০+১৮.০০টাকা

 সর্বমোট

২৫০টাকা

বিঃ দ্রঃ এখানে উল্লেখ্য যে, আবেদন বাবদ ৫.০০ টাকা কোর্ট ফি এর মাধ্যমে এবং অবশিষ্ট এফ.ডি.সি.আর এর মাধ্যমে জমা দেয়া যেতে পারে।  মিউটেশন করার সাথে সাথে একটি খতিয়ানের অনুলিপিঅফিস থেকে দেয়া হয়, যাকে মিউটেশন বা খারিজ পর্চা বলে। নামজারি বাবদ উপরোক্ত খরচ ছাড়া অন্য কোন টাকা দেওয়া বা নেওয়া সম্পূর্ণ বেআইনী ও অবৈধ।  

 

কত দিনের মধ্যে নামজারী/ মিউটেশন সম্পাদন হয়?

সিটিজেন চার্টার অনুসারে ৪৫(পঁয়তাল্লিশ) কর্ম দিবসেরমধ্যে নামজারী সম্পাদন করা হবে যদি মালিকানার বিষয় নিয়ে কোন বিতর্ক না থাকে এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আবেদনের সাথে জমা দেয়া হয়।

 

খতিয়ানের জাবেদা নকল/ সার্টিফাইড কপির জন্য ফি:

ফিসের বিষয়

সাধারণ

জরুরী

(১) প্রতি খতিয়ানে জাবেদা নকলের জন্য কোর্ট ফি  (ফোলিওপ্রতি)

২.০০ টাকা

-

(২) সাধারণ কোর্ট ফি:

১১টাকা

১৬ টাকা

 

ভূমি উন্নয়ন কর/ খাজনা:

সাধারণত যার নামে জমির রেকর্ড সেই ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ভূমি উন্নয়ন কর দিতে হয়। যে এলাকায় জমির অবস্থান সেই এলাকার ইউনিয়ন ভূমি অফিসে (তহসিল অফিস) ভূমি উন্নয়ন কর দিতে হয়।

 

কৃষি জমির ভূমি উন্নয়ন কর:

০.০১ থেকে  ৮.২৫ একর পর্যন্ত

২৫ বিঘা পর্যন্ত কৃষি জমির খাজনা মওকুফ তবে মালিকানা স্বত্ত্বপ্রমাণের  জন্য খতিয়ান প্রতি ২.০০ টাকা দিয়ে দাখিলা নিতে হবেএবং অন্যান্য জমির ক্ষেত্রে খাজনা প্রযোজ্য।

৮.২৫ একরের উর্ধ্বে হইতে ১০ একর পর্যন্ত

প্রতি শতাংশ ০.৫০ টাকা হারে

১০ একরের উর্ধ্বে

প্রতি শতাংশ ১.০০ টাকা হারে

 

অকৃষি জমির ভূমি উন্নয়ন কর:                                                                                                                    

এলাকা

শিল্প/বাণিজ্যিক ব্যবহৃত জমি (প্রতি শতাংশ)

আবাসিক বা অন্য কাজে ব্যবহৃত জমি (প্রতি শতাংশ)

(ক)দিনাজপুরজেলা সদরের পৌর এলাকা

২২.০০ (বাইশ)টাকা

৭.০০ (সাত) টাকা

(খ)জেলা সদর ব্যতীত অন্য পৌর এলাকা

১৫.০০(পনের) টাকা

৫.০০(পাঁচ) টাকা

(গ) পৌর এলাকা ঘোষিত হয় নাই এরুপ এলাকা

১৫.০০ (পনের) টাকা

৫.০০ (পাঁচ) টাকা

 

কেন ভূমি উন্নয়ন কর সময়মত পরিশোধ করবেন?

ভূমি উন্নয়ন কর প্রতি বছর পরিশোধ করতেহয়। পর পর দুই বছর ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ না করলেজমির মালিকের বিরুদ্ধে (পি.ডি.আর এ্যাক্টের আওতায়) সার্টিফিকেট কেস হবে। এই কেসে হারলে অর্থাৎ ভূমি উন্নয়ন কর না দিতে পারলে জমির অধিকার হারাবেন। ভূমি উন্নয়ন কর বাকী পড়লে জমি নিলামে তোলা হয়।

 

তথ্য/ সেবা না পেলে কার কাছে অভিযোগ করবেন?

ইউনিয়ন ভূমি অফিসে এবং সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসে তথ্য/সেবা পেতে হয়রানির শিকার হলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কেলিখিতভাবে জানাবেন/ অভিযোগ করবেন।

ছবি নাম মোবাইল
মোহাম্মদ শওকত আলী +৮৮০১৭১১০০৪৮১৯

ছবি নাম মোবাইল
মোহাম্মদ শওকত আলী +৮৮০১৭১১০০৪৮১৯

ছবি নাম মোবাইল

উপজেলা ভূমি অফিসের সিটিজেন চার্টার

ক্রমিক নং

সেবার নাম

সেবা প্রদনের পদ্ধতি

সেবা প্রদানের সময় সীমা

নির্দিষ্ট সেবা প্রদানে ব্যর্থ হলে প্রতিকারের বিধান

০১

নামজারী ও জমা খারিজ

আবেদন প্রাপ্তির পর যথাযথ তদন্ত পূর্ব্বক পক্ষগণকে নোটিশ প্রদানক্রমে শুনানি গ্রহণ সাপেক্ষে কোন আপত্তি না থাকলে অনুমোদন।

ক) আবেদন বাবrকোর্ট ফি ৫.০০(পাঁচ) টাকা।

খ) নোটিশ জারী ফি ২.০০(দুই) টাকা (অনধিক ৪ জনের জন্য)। এর অধিক প্রতি জনের জন্য আরো ০.৫০ টাকা হিসাবে আদায় করতে হবে।

গ) রেকর্ড সংশোধন ফি ২০০.০০ (দুইশত) টাকা।

ঘ) প্রতি কপি মিউটেশন খতিয়ান ফি ২৫.০০(পচিশ) টাকা। সর্বমোট= ২৩২.০০ (দুইশত বত্রিশ) টাকা + নোটিশ জারীর ফি ৪ এর অধিক প্রতি জনের জন্য আরো ০.৫০ টাকা হিসাবে।

এখানে উল্লেখ্য যে, আবেদন বাবদ ৫.০০ (পাচ) টাকা কোর্ট ফি এর মাধ্যমে এবং অবশিষ্ট ফি ডি.সি. আর এর মাধ্যমে আদায় করতে হবে। 

 

৪৫(পয়তাল্লিশ)দিন

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)বরাবরে নামজারী আপিল দায়ের করণ।

০২

কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত

নির্ধারিত ফর্মে প্রদত্ত আবেদন গ্রহণ, আবেদন বাছাই, বন্দোবস্তের প্রস্তাব প্রেরণ।বন্দোবস্ত অনুমোদনের পর দলিল সম্পাদন করে রেজিষ্ট্রেশনের জন্য প্রেরণ। বন্দোবস্ত অনুমোদন এর পর রেকর্ড সংশোধন ও দলিল হস্তান্তর ।

৬০(ষাট)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৩

অকৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত

আবেদন প্রাপ্তির পর তদন্ত শেষে নথি সৃজন ক্রমে বন্দোবস্তের প্রস্তাব প্রেরণ।

১৫(পনের)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৪

ভূমি উন্নয়ন কর

মালিকানা সংক্রান্ত কাগজ পত্র প্রদর্শন পূর্ব্বক ইউনিয়ন ভূমি অফিসে ভূমি উন্নয়ণ করের টাকা পরিশোধ করে রশিদ গ্রহণ

০২(দুই)দিন

সহকারী কমিশনার (ভূমি)বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৫

অর্পিত সম্পত্তি বন্দোবস্ত ও নবায়ন

যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে সঠিক পাওয়া গেলে নবায়নের সুপারিশ সহকারে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে প্রস্তাব প্রেরণ।

১৫(পনের)দিন

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৬

জলমহাল (২০একর পর্যন্ত)  

ইজারা প্রদান, ইজারা ফি আদায়, দখল প্রদান।

৩০(ত্রিশ)দিন

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৭

জলমহাল (২০একরের উর্ধ্বে) 

ইজারাদার বরাবর দখল প্রদান।

০৩(তিন)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৮

বালু মহাল

ইজারাদার বরাবর দখল প্রদান।

০৩(তিন)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

০৯

হাট বাজার

ইজারাদার বরাবর দখল প্রদান।

 

চান্দিনা ভিটি একসনা লাইসেন্স ভিত্তিক বন্দোবস্তের আবেদন প্রাপ্তির পর তদন্ত শেষে প্রতিবেদন প্রেরণ।

০৩(তিন)দিন

 

 

১৫(পনের)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

১০

পর্চা প্রদান

ভূমি উন্নয়ণ করের রশিদ প্রাপ্তির পর রেকর্ড মতে পর্চা প্রদান।

০৩(তিন)দিন

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

১১

শ্রেনী পরিবর্তন

আবেদন প্রাপ্তির পর যথাযথ তদন্ত পূর্ব্বক উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর তদন্ত প্রতিবেদন প্রেরণ। 

১৫(পনের)দিন

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

১২

ভূমি মালিকানা সনদ পত্র প্রদান

আবেদন প্রাপ্তির পর যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে আবেদন কারীর নামে রেকর্ড থাকলে সনদ পত্র ইস্যু।

১৫(পনের)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

১৩

জাবেদা নকলের জন্য নথি ও খতিয়ান কপি প্রেরণ

আবেদন প্রাপ্তির পর নথি ও খতিয়ান কপি প্রেরণ।

০৩(তিন)দিন

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

১৪

বিভিন্ন দরখাস্তের উপর কার্যক্রম গ্রহণ

আবেদন প্রাপ্তির পর সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বরাবরে তদন্তের জন্য প্রেরণ এবং তদন্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ।

১৫(পনের)দিন

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে আপত্তি দায়ের করণ।

ওসমানীনগর উপজেলা

উপজেলা ভূমি অফিস

ওসমানীনগর, সিলেট।



Share with :

Facebook Twitter